Header Ads

Syzygium Jombolanum (সিজিজিয়াম জ্যাম্বোলেনাম) [Syzyg - সিজিজি}


Syzygium Jombolanum (সিজিজিয়াম জ্যাম্বোলেনাম)
Syzygium Jombolanum (সিজিজিয়াম জ্যাম্বোলেনাম)
 Syzygium Jombolanum (সিজিজিয়াম জ্যাম্বোলেনাম)

বাংলাদেশে যে কালজাম পাওয়া যায় তার বীজ হইতে হোমিওপ্যাথিক পদ্ধতিতে ঔষধ প্রস্তুত করা হয়। ঔষধটি হোমিওপ্যাথিক মেটেরিয়া মেডিকায় গৃহীত হইয়াছে এবং সর্বজনপ্রশংসিত। বহুমূত্র রোগের একটি শ্রেষ্ঠ ঔষধরূপে ইহা সাদরে পৃথিবীময় ব্যবহৃত হইতেছে।

ডাঃ চোপরা এই ঔষধ সম্বন্ধে বলিয়াছেন, “জামবীজচূর্ণ বহুমূত্র রোগে মূত্র হইতে চিনির পরিমাণ কমাইয়া দেয়।” 

ডাঃ বোরিক বলেন, “অন্য কোন ঔষধনই এইরূপ সুস্পষ্টভাবে মূত্রের চিনি কমায় না এবং ক্রমে উহা একেবারে তাড়ােইয়া দেয় না।” 

ডাঃ বোরিক ইনসুলিন ঔষধটিকে ইহার সমগুণ ও সহযোগী বলিয়া বর্ণনা করিয়াছেন। 


শর্করাযুক্ত ও শর্করাবিহীন উভয়বিধ বহুমূত্র রোগেই ইহার কার্যকারিতা পরীক্ষিত।

প্রয়োগলক্ষণ
(১) দেহে একপ্রকার অস্বাভাবিক উত্তাপের অনুভূতি।

(২) দেহ শুকাইতে থাকে, প্রবল তৃষ্ণা, প্রচুর মূত্রত্যাগ। মূত্রের আপেক্ষিক গুরুত্বের বৃদ্ধি।

(৩) দেহে লাল লাল ফুস্কুড়ির মত উদ্ভেদ।

(৪) চর্মে পুরাতন ক্ষত, বহুমূত্র রোগীর কার্বাঙ্কল।

(৫) বহুমূত্র রোগীর দেহের কোন স্থানে স্থায়ী ও নিশ্চল বেদনা, বিশেষতঃ পৃষ্ঠদেশে।

ইহা এরূপ লক্ষণাক্রান্ত রোগীতে অতিসত্বর মূত্রের অবস্থার পরিবর্তন করে, আপেক্ষিক গুরুত্ব কমাইয়া আনে এবং মূত্র হইতে শর্করা অপসৃত করে। সিজিজিয়ামের রোগী প্রতিবারে অনেকখানি করিয়া প্রস্রাব করে, তার প্রস্রাব করিয়াই ভাবে যে সে যেন অত্যান্ত দুর্বল হইয়া পড়িল। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তাহার অম্ললক্ষণ থাকে; অম্লাজীর্ণ রোগগ্রস্থ ব্যক্তির পক্ষে ঔষধটি আরও বেশী উপযোগী হইয়া থাকে। 

কোন মন্তব্য নেই

Blogger দ্বারা পরিচালিত.